করোনার কান্তিকালেও নিরবিচ্ছিন্ন সেবা নিয়ে গ্রাহকের পাশে ব্যাংক এশিয়া

জি এম শাকিল;  কোনো বড় ধরনের সংকটে দেশের ভঙ্গুর অর্থনৈতিক ব্যবস্হাকে পুনগঠনের জন্য ব্যাংকিং খাতের প্রয়োজনীয়তা এবং গুরুত্ব অপরিসীম। করোনা ভাইরাসের কারণে সৃষ্ট বৈশ্বিক মহামারী যখন বাংলাদেশের অর্থনীতিকে ভগ্নপ্রায় করে তুলেছে,তখন এই সংকট উওরনের অনুঘটক হিসেবে বন্ধপ্রায় অথনৈতিক কার্যক্রমে গতি ফেরাতে এবং আয়  হারানো মানুষের  মাঝে তারল্য প্রবাহ সংকলনের জন্য ব্যাংকিং খাতের অংশগ্রহণ অত্যাবশকীয় হয়ে উঠেছে।করোনা ভাইরাস এর কারণে যখন ব্যাংকিং খাত  বিপর্যয়ের মুখে  ঠিক তখনি ব্যাংক এশিয়া চাটখিল শাখা স্বাস্থ্যবিধির ১৩ টি দিকনির্দেশনা মেনে গ্রাহকদের সেবা দিয়ে যাচ্ছে ।দৈনিক চাটখিলবার্তার সাথে একান্ত সাক্ষাতকারে  ব্যাংক এশিয়া চাটখিল শাখার ব্যবস্হাপক ও এভিপি  মিজানুর রহমান বুলবুল গ্রাহক এবং ব্যাংকারদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে তাদের পদক্ষেপসমূহ তুলে ধরেন। এরমধ্যে  ব্যাংকের ভিতরে বায়ু চলাচল বৃদ্ধি, শীতাতপ যন্ত্র ব্যবহারের ক্ষেত্রে যন্ত্রের স্বাভাবিক ক্রিয়া নিশ্চিত করন ,বিশুদ্ধ বাতাস বৃদ্ধি এবং এয়ারসিস্টেমের ফিরে আসা বাতাসকে বন্ধ রাখা, ব্যবহার্য সুবিধাগুলো নিয়মিত পরিষ্কার ও জীবাণুমুক্ত করন (যেমন কিউইং মেশিন, কাউন্টার, চিফার মেশিন, রোলার পেন, ক্যাশ কাউন্টার, , জনসাধারণের বসার জায়গা, ব্যাংকিং লবি, এলিভেটর এবং তথ্যকেন্দ্র পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন এবং ময়লা সময়মতো পরিষ্কার করণ ,স্টাফ এবং আগত সকলের ব্যক্তিগত সুরক্ষা নিশ্চিত করণ) ।মিজানুর রহমান বুলবুল আরও বলেন,২০০৭ সালে ২৯ ই মার্চ থেকে ব্যাংক এশিয়া চাটখিল শাখার কার্যক্রম শুরু হয়। সূচনালগ্নে থেকে ব্যাংক এশিয়া চাটখিলের মানুষের আস্হা এবং বিশ্বাসের জায়গাটি এখন পর্যন্ত ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছে।ব্যাংক এশিয়া চাটখিল উপজেলার ৩০ হাজার পরিবারের সাথে অর্থনৈতিক সম্পর্ক রেখেছে।সাধারণ গ্রাহকের ৪০০ কোটি টাকা ডিপোজিট রয়েছে। গরিব এবং দু;স্হ মানুষদের বিপদে এগিয়ে এসেছে ব্যাংকটি, বাড়িয়ে দিয়েছে মানুষের মাঝে সহযোগিতার হাত, নিম্নবিত্ত মানুষকে অর্থ ও নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রী দিয়ে সহযোগীতা করে আসছে এবং গরিব মেধাবী ছাএ যারা অর্থের অভাবে পড়তে পারছেনা তাদেরকেও বিভিন্ন সময় অর্থ এবং লেখা পড়ার বিভিন্ন দ্রব্য সামগ্রী দিয়ে সহযোগিতা করে আসছে ব্যাংক এশিয়া চাটখিল।ইনশাআল্লাহ আমরা অতিশীঘ্রই করোনা ভাইরাস থেকে রক্ষা পাবো, আপনারা সরকারি স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন,ঘরে থাকুন।প্রয়োজনে কোথায়ও যদি যেতে হয় স্বাস্থ্যবিধি মেনে যাবেন, ইনশাআল্লাহ আমরা আপনাদের পাশে ছিলাম, আছি এবং থাকবো।যারা কভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়েছেন , বিশেষ করে ব্যাংক এশিয়া চাটখিল এর ২-৩ জন স্টাফসহ ব্যাংকারদের জন্য তিনি দেশবাসীর দোয়া কামনা করেন।

Developed by : M. Masud Alam