কবির আহমেদ মুন্সীর

ষ্টাফ রিপোর্টারঃ চাটখিলের কৃতি সন্তান ডঃ কবির আহমেদ মুন্সী গত ১৯ জুলাই বিশ্ব নন্দিত কমনওয়েলথ ইউনিভার্সিটি থেকে ডক্টরেট ডিগ্রী DOCTOR OF BUSINESS ADMINISTRATION (DBA) গ্রহণ করেন। বিশ্ব বরেণ্য গুণীজনদের উপস্থিতিতে দুবাইতে অনুষ্ঠিত ঝাকঝমকপূর্ণ সমাবর্তনের মাধ্যমে শিপিং এবং লজিষ্টিকস ব্যবসায় সমগ্র বিশ্বে সুনাম অর্জনকারী ডঃ কবির আহমেদ মুন্সীকে Specialising in Shipping & Logistics (Honoris Causa) এর উপরে উক্ত ডক্টরেট ডিগ্রী প্রদান করা হয়। প্রথম বাংলাদেশী হিসেবে তিনি এই ডিগ্রী অর্জন করে বাংলাদেশকে বিশ্ব আঙ্গিনায় নতুন উচ্চতায় প্রতিষ্ঠিত করলেন। ডঃ মুন্সী নোয়াখালী জেলার চাটখিল থানার অন্তর্গত বদলকোট গ্রামের উত্তরপাড়া মুন্সী বাড়ির এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্ম গ্রহণ করেন। তাঁর পিতা মরহুম মোহাম্মদ এরশাদ উল্যা মুন্সীর তিন পুত্র সন্তানের মধ্যে তিনি সবার ছোট। পারিবারিক জীবনে আনিকা বুসরা আহমেদ মুন্সী নামে তাঁর একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। সামাজিক বিভিন্ন দায়বদ্ধতা থেকে তিনি বিভিন্ন সামাজিক কর্মসূচীতে নিজেকে ব্যস্ত রাখতে পছন্দ করেন। নোয়াখালীর শিক্ষাক্ষেত্রে ভূমিকা রাখার লক্ষ্যে তিনি চাটখিল পাঁচগাঁও মাহবুব সরকারি কলেজের কিছু উদীয়মান তরুণ নেতৃত্ব নিয়ে ২০১২ সালে গঠন করেন চাটখিল পাঁচগাঁও মাহবুব সরকারি কলেজ অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন। সেই থেকে অদ্যাবধি তিনি চাটখিল পাঁচগাঁও মাহবুব সরকারি কলেজ অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করে চাটখিল পাঁচগাঁও মাহবুব সরকারি কলেজের প্রাক্তন ও বর্তমান ছাত্রছাত্রীদের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছেন। ব্যবসায়িক জীবনে অত্যন্ত সফল কনভেয়র গ্রুপের চেয়ারম্যান ডঃ কবির আহমেদ মুন্সী ইন্টারন্যাশনাল এয়ার এক্সপ্রেস অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট হিসেবে অত্যন্ত সুনামের সহিত কাজ করে যাচ্ছেন। ডঃ মুন্সী বাংলাদেশ ফ্রেইট ফরওয়ারডারস অ্যাসোসিয়েশনের বোর্ড অব ডিরেক্টর্সের মেম্বার হিসেবে বাফাকে নেতৃত্ব দিয়ে যাচ্ছেন। বাংলাদেশে শিপিং এবং লজিষ্টিকস ব্যবসার এই আইকন গত ১৭ জুন বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজের ডিরেক্টর নির্বাচিত হন এবং ২৪ জুন স্পেন বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজের ডিরেক্টর নির্বাচিত হন। ব্যবসায়িক কাজে তিনি ৫০টির অধিক দেশ ভ্রমণ করেছেন। সম্প্রতি তিনি ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই এবং গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রতিনিধি হিসাবে কমনওয়েলথ শীর্ষ সম্মেলনে অংশগ্রহণ করেন।

Developed by : M. Masud Alam